হারিয়ে যাওয়া জুয়েল . . . 

হারিয়ে যাওয়া জুয়েল লঞ্চ টারমিনালে দাড়িয়ে! ছবি:মনিরুল আলম

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর কারণে গত শনিবার থেমে থেমে ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছিল ঢাকায়। আমি সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে হাঁটছি। সেদিন সব লঞ্চ চলাচল বন্ধ। টার্মিনালটি অনেকটাই জনশূন্য। হকারের ছুটোছুটি, হাঁকডাক নেই বললেই চলে। আমি ঘুরে ঘুরে বন্ধ টার্মিনালের ছবি তুলছিলাম।

হাঁটতে হাঁটতে চোখে পড়ল ছোট একটা জটলা। আমার কাঁধে ক্যামেরা ঝোলানো দেখে জটলা থেকে এক ব্যক্তি বললেন, ‘ভাই, একটা ছবি তুলবেন? এই ছেলেটার!’ আমি জানতে চাইলাম, ‘ঘটনা কী? ছেলেটার কী হয়েছে?’

ছবি তুলতে যিনি অনুরোধ করেছিলেন, তাঁর নাম মো. রনি। সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে রুটি, বিস্কুট বিক্রি করেন। বললেন, ‘ছেলেটির নাম জুয়েল। ১৮-১৯ বছর বয়স। বেশ কয়েক বছর হলো হারিয়ে গেছে। সে মা-বাবার কাছে ফিরতে চায়। কোনো ঠিকানা বলতে পারে না, শুধু বলতে পারে, তার মামা বরিশালে তরমুজ বিক্রি করত।’

আমি জুয়েলের চোখের দিকে তাকাই। অসহায় সেই চোখের দৃষ্টি! বাবা-মার কাছে ফেরার আকুতি! এই ঝড়বৃষ্টির মধ্যে সে গাজীপুর থেকে বরিশাল যাওয়ার জন্য এসেছে। কয়েকজনের কাছে শুনেছে, সদরঘাট এলে লঞ্চে বরিশাল যাওয়া যায়।

আমি জুয়েলকে জিজ্ঞেস করি, ‘তুমি গাজীপুরে কী করতা?’ বলল, গাজীপুরে একটা হোটেলে কাজ করত। ঠিকমতো বেতন ও খাবার পেত না। বলল, ‘আমি পালাইয়া চইলা আইছি, আমার ভালো লাগে না, আমি বাবা-মার কাছে যাইতে চাই!’

বাবা-মা সম্পর্কে কিছুই বলতে পারল না জুয়েল। শুধু বলল, বাবা বিভিন্ন গ্রামে ঘুরে ঘুরে শুঁটকি বিক্রি করত।

জুয়েলের সঙ্গে আরও কথা হয়। জানতে পারি, ছয়–সাত বছর বয়সে সে বরিশাল থেকে হারিয়ে যায়। সেখানে তার মামা তরমুজ বিক্রি করত। তারপর কীভাবে ঢাকায় এসেছে জানে না। গাজীপুর এলাকায় এক মামা তাকে এক হোটেলে কাজে লাগিয়ে দেয়। সেই মামার নাম শাহাবুদ্দিন। তবে তিনি জুয়েলের আপন মামা নন। মামা গাজীপুরে জুতার দোকানে কাজ করেন।

জুয়েলকে প্রশ্ন করি, ‘এত দিন পর তোমার বাবা-মার কাছে যাইতে মন চাইল!’ জুয়েল উত্তর দেয় না। শুধু তাকিয়ে থাকে।

হকার রনি অনেক আশা নিয়ে বলেন, ‘ভাই, আপাতত ও আমার কাছে থাকব। আমার ফোন নম্বরটা রাখেন। ওর বিষয়ে কোনো খোঁজখবর হইলে আমাকে ফোন দিয়েন।’

আমি ওদের কাছ থেকে বিদায় নিই। ফিরে যেতে যেতে রনির দিকে আরও একবার তাকাই। অসহায় দৃষ্টিতে সে আমার দিকে তাকিয়ে থাকে।

Prothom Alo Link 

মনিরুল আলম

পুরান ঢাকা

মে, ২০১৬ 

Cyclone Roanu Cross in Bangladesh . . . 

Reportage @ 21 May, 2016, Dhaka, Bangladesh – A sparrow bird takes shelter on the building during the Cyclone Roanu cross the costal area of Bangladesh on 21 May, 2015 Dhaka, Bangladesh. According to the media report at least 24 people have died and over 50 injured in coastal Bangladesh as strong winds have left hundreds of houses damaged and trees uprooted. © Monirul Alam
Reportage @ 21 May, 2016, Dhaka, Bangladesh- A man cross under construction building near the bank of Buriganga river during the Cyclone Roanu cross the costal area of Bangladesh on 21 May, 2015 Dhaka, Bangladesh. According to the media report at least 24 people have died and over 50 injured in coastal Bangladesh as strong winds have left hundreds of houses damaged and trees uprooted. © Monirul Alam

Reportage @ 21 May, 2016, Dhaka, Bangladesh- People cross the bank of Buriganga river during the Cyclone Roanu cross the costal area of Bangladesh on 21 May, 2015 Dhaka, Bangladesh. According to the media report at least 24 people have died and over 50 injured in coastal Bangladesh as strong winds have left hundreds of houses damaged and trees uprooted. © Monirul Alam

তুমি সক্রেটিস, তুমি বাংলাদেশ . . .

আপাততো অবস্থায় যাদের মানুষ বলে মনে হতো  

তারা আজ আর মানুষ নয়—তারা আজ অন্য কিছু ; অন্য রকম !

শ্যামল কান্তি ভক্ত ; তুমি—ই সক্রেটিস;

বিনা অপরাধে; অপবাদে—রাষ্ট্র দন্ড মেনে নিয়েছ;

তুমি সক্রেটিস ; তুমি বাংলাদেশ ;

তুমি শিক্ষক—জাতীর মেরুদন্ড; 

আপাততো অবস্থায় যাদের মানুষ বলে মনে হতো  

তারা আজ আর মানুষ নয়—তারা আজ অন্য কিছু ; অন্য রকম !

সৃষ্টিকাল / ১৭ মে, ২০১৬

পুরান ঢাকা,বাংলাদেশ 

নোট: শ্যামল কান্তি ভক্ত, নারায়ণগঞ্জের মদনপুরের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক । ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তাকে স্থানীয় সাংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমানের উপস্থিতিতে ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সামনেই তাকে কান ধরে উঠবস করানো হয় । এই অসভ্যতার ঘটনাটি ঘটে গত ১৩ মে, শুক্রবার, ২০১৬ । চূড়ান্ত অসভ্যতা, বর্বরতা ও বেআইনি ঘটনাটি বিভিন্ন মিডিয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হলে, সাধারন মানুষ এর তীব্র প্রতিবাদ জানান । শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, ঘটনাটি নিন্দা জানিয়ে তদন্ত করে করণীয় ঠিক করা হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ।